ফিলিস্তিনের বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত লড়াই অব্যাহত রাখার ঘোষণা ফাতাহ’র

পূর্ব জেরুজালেম: আল আকসা মসজিদের নিয়ন্ত্রণ নিতে লড়াই অব্যাহত রাখার জন্য আহ্বান জানিয়েছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের ক্ষমতাসীন ফাতাহ পার্টি।

 

শনিবার সমর্থকদের উদ্দেশ্যে পাঠানো এক একটি বিবৃতিতে এই আহ্বান জানানো হয়। ‘ওয়ালা’ সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলেন, ‘জেরুজালেমের জন্য কার্যকরভাবে আমাদের ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে এবং ইসরাইলি দখল থেকে পবিত্র স্থানটি দখলমুক্ত না হওয়া পর্যন্ত ও ফিলিস্তিনি বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত এটি অব্যাহত থাকবে।’

বিবৃতিতে আল আকসা মসজিদের প্রধান প্রবেশদ্বারে ইসরাইলের মেটাল ডিটেকটর বসানোর প্রতিবাদে শুক্রবার ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের জেরুজালেমের রাস্তায় রাস্তায় বিক্ষোভের প্রশংসা করা হয়।

 

অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমের পবিত্র আল-আকসা মসজিদে প্রবেশে কড়াকড়ির আরোপের পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার দিনভর ইসরাইলের নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের সংঘর্ষ হয়। এতে ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে তিন ফিলিস্তিনি নিহত হয়। আহত হয় অন্তত ২০০ জন।

শত্রুদের বিরুদ্ধে ইন্তিফাদা বা ধর্ম যুদ্ধ শুরু করার জন্য ফাতাহ’র পক্ষ থেকে বিক্ষোভকারীদের অভিবাদন জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ‘আল-আকসা মসজিদের সুরক্ষায় এবং ইসরাইলি পরিকল্পনার বিরুদ্ধে তাদের সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার জন্য তাদের অভিবাদন জানাচ্ছি।’

বিবৃতিতে, নিহত প্রতিবাদকারীদের সম্মানে তিন দিনের শোক পালনের পাশাপাশি সাধারণ ধর্মঘট পালনের জন্য বলা হয়।

গত ১৪ জুলাই সন্দেহভাজন ফিলিস্তিনি বন্দুকধারীদের গুলিতে ইসরাইলের দুই পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আল-আকসা মসজিদের প্রধান প্রবেশদ্বারে মেটাল ডিটেকটর বসায় ইসরাইল। দেশটির এমন উদ্যোগকে আল-আকসার উপর নিয়ন্ত্রণের চক্রান্ত হিসেবে আখ্যায়িত করে প্রতিদিনই বিক্ষোভ করছে ফিলিস্তিনি ও ইসরাইলি আরবরা।

ফাতাহ’র পক্ষ থেকে বলা হয় যে ইসরাইলি পদক্ষেপ ‘আল-আকসা’র ওপর ইহুদি ধর্ম ও অধিকার প্রতিষ্ঠার’ বর্ণবাদী চক্রান্ত এবং মসজিদের আগের অবস্থা প্রত্যাবর্তন ছাড়া অন্য কোন সমাধান গ্রহণযোগ্য নয়।

এদিকে, আল-আকসা মসজিদে প্রবেশ ও জুমার নামাজে বাধা এবং ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে তিন ফিলিস্তিনি নিহতের ঘটনায় দেশটির সঙ্গে রাজনৈতিকসহ সবধরনের যোগাযোগ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস।

স্থানীয় সময় শুক্রবার টেলিভিশনে দেওয়া এক সংক্ষিপ্ত ভাষণে মাহমুদ আব্বাস এই ঘোষণা দেন।

আব্বাস বলেন, আল-আকসা মসজিদের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার জন্যই উদ্দেশ্যপূর্ণভাবে সেখানে মেটাল ডিটেক্টর বসানো হয়েছে।

আব্বাস বলেন, ‘আল-আকসা মসজিদে নেয়া (নিরাপত্তা) ব্যবস্থা বাতিল না করা হলে এবং স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে না আনা পর্যন্ত আমি ইসরাইলের সঙ্গে সর্বস্তরের যোগযোগ বন্ধের ঘোষণা দিচ্ছি।’

আব্বাস জানান, তিনি মিশর, সৌদি আরবে এবং মরোক্কোসহ বিভিন্ন রাষ্ট্রের রাষ্ট্র প্রধানদের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং মসজিদটির ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করার জন্য তাদের আহ্বান জানানো হয়েছে।

শুক্রবারের সংঘর্ষে আহত আহতদের চিকিৎসার ব্যয় ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ বহন করবে বলে তিনি ঘোষণা দেন।

এছাড়াও তিনি হামাসকে তার নিজের দলের সঙ্গে মিলিত হওয়ার জন্য আহ্বান জানান।

সূত্র: দ্য টাইমস অব ইসরাইল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *